Skbd IT https://www.skbdit.com/2022/10/tumar-valo-ghoroya.html

টিউমার ভালো করার ঘরোয়া উপায়


আপনাদের জন্য এই পোস্টে আমরা টিউমার ভালো করার ঘরোয়া উপায় নিয়ে এসেছি। আপনারা যারা টিউমার নিয়ে ভুগছেন। তারা আমাদের এই পোস্টটি পড়ে টিউমার ভালো করার ঘরোয়া উপায় সম্পর্কে জানতে পারবেন। আমাদের পোস্টটি শেষ পর্যন্ত মনোযোগ সহকারে পড়তে থাকুন। তাহলে আপনি টিউমার ভালো করার ঘরোয়া উপায় সম্পর্কে সঠিক তথ্য জানতে  পারবেন।

টিউমার ভালো করার ঘরোয়া উপায়

আপনারা যারা টিউমার নিয়ে ভুগছেন তারা দেরি না করে অতি শীঘ্রই আমাদের পোস্টটি ঝটপট পড়ে ফেলুন তাহলে আপনি টিউমার ভালো করার ঘরোয়া উপায় গুলো সম্পর্কে জানতে পারবেন।

সূচিপত্রঃ টিউমার ভালো করার ঘরোয়া উপায় 

টিউমার ভালো করার ঘরোয়া উপায়ঃ উপস্থাপনা

আজকের এই পোস্টটিতে আমরা টিউমার ভালো করার ঘরোয়া উপায় সম্পর্কে আলোচনা করব। আপনারা অনেকেই আছেন যারা টিউমার ভালো করার জন্য বিভিন্ন রকমের চিকিৎসা নিয়ে থাকেন। এবং অনেক ধরনের ওষুধ পানীয় খেয়ে থাকেন। টিউমার নিয়ে অনেকে আছেন যারা অনেকদিন থেকে ভুগছেন। আমরা বিভিন্ন ভাবে টিউমার ভালো করে থাকি।

আরো পড়ুনঃ কোষ্ঠকাঠিন্য দূর করার উপায়

কেউ বা ডাক্তারি চিকিৎসার মাধ্যমে কেউবা বিভিন্ন হোমিও খেয়ে টিউমার ভালো করে থাকেন। আমাদের শরীরে অনেক ধরনের টিউমার হয়ে থাকে। এসব টিউমার দূর করতে আমরা টিউমার ভালো করার ঘরোয়া উপায়গুলো ব্যবহার করতে পারি। টিউমার ভালো করার ঘরোয়া উপায় গুলোর মাধ্যমে আমাদের বিভিন্ন প্রকারের টিউমার গুলো দ্রুতই  সেরে যেতে পারে।

তাই আপনারা যারা টিউমারে ভুগছেন তারা দ্রুতই আমাদের পোস্টটির মাধ্যমে টিউমার ভালো করার ঘরোয়া উপায় গুলো জেনে নিতে পারেন।

টিউমার কি?

অনেকেই আছেন যারা টিউমার কি তা জানেন না আজকের এই পোস্টটিতে আমরা টিউমার কি ও টিউমার ভালো করার ঘরোয়া উপায় গুলো সম্পর্কে আপনাদের জানানোর চেষ্টা করব তাহলে চলুন টিউমার কি তা জেনে নি।

টিউমার আমাদের শরীরের অস্বাভাবিক কিছু  টিস্যুর সমাবেশ। টিস্যু হল একই ধরনের কিছু কোষ। এই টিসুগুলো এক হয়ে একই ধরনের কাজ করে থাকে। এগুলোই টিউমার। এ কোষ গুলো আবার অস্বাভাবিক প্রক্রিয়ায় সংখ্যা বৃদ্ধি করে থাকে। কোষগুলো যখন পুরনো বা ক্ষতিগ্রস্ত হয় তখন নতুন কোষ দ্বারা প্রতিস্থাপিত হয়। 

টিউমার হওয়ার কারণ কি?

আমাদের শরীরে বিভিন্ন প্রকার রোগে আক্রান্ত হয়ে থাকে। এ টিউমার গুলো হওয়ার কারণ হলো আমাদের শরীরের টিস্যু গুলো যখন মারা যায় তখন কিছু নতুন টিস্যুর উদ্ভাবন ঘটে। আবার দেখা যায় পুরনো কোষ গুলো কিছু কিছু বিনষ্ট হয়ে যায় না। যার ফলে ওই  কোষ গুলো জমাট বেঁধে টিউমার হওয়ার সম্ভাবনা থাকে।

কারো কারো আবার বংশগত কারণেও টিউমার হয়ে থাকে। এটি বিশেষ করে ব্রেন টিউমার ।ব্রেন টিউমার হওয়ার কারণ হলো বংশে যদি মা বাবা ও আপনার  বংশের কেউ যদি ব্রেন টিউমারে আক্রান্ত থাকে, তাহলে আপনিও ব্রেন টিউমারে আক্রান্ত হতে পারেন।

কয় ধরনের টিউমার হয় 

আমাদের শরীরে বিভিন্ন প্রকার টিউমার আমরা দেখতে পাই। এই সব টিউমার গুলো বিভিন্নভাবে আমাদের শরীরে আক্রমণ করে থাকে। টিউমার থেকে বাঁচতে আমরা বিভিন্ন ধরনের ঘরোয়া উপায় গুলো মেনে চলতে পারি। আজকের এই পোস্টটিতে আমরা কয় ধরনের টিউমার হয় তা আপনাদের জানাবো।

টিউমার সাধারণত তিন ধরনের হয়ে থাকে - 

  • হিস্টোমা বা  কানেক্টিভ টিস্যু টিউমার
  • সাইটোমা 
  • টেরাটোমা বা মিক্সড সেল টিউমার 

হিস্টোমা টিউমার আবার দুই প্রকার -

  • বিনাইন -সাধারণ টিউমার
  • ম্যালিগনেন্ট -জটিল টিউমার

টিউমার চেনার উপায়

আমাদের শরীরে বিভিন্ন রকম টিউমার দেখা দিতে পারে। সেগুলো আমরা অনেকেই আছি যারা চিনতে পারিনা। আজকের পোস্টটিতে আমরা টিউমার ভালো করার ঘরোয়া উপায়  নিয়ে আজকে আপনাদের সাথে আলোচনা করব।

টিউমার মূলত দুই ধরনের হয়ে থাকে -

১. যে টিউমার গুলো এক জায়গায় সৃষ্টি হয় এবং একই জায়গায় বংশ বৃদ্ধি করতে থাকে তাকে বিনাইন টিউমার বলে। এ টিউমারটি তেমন কোন ক্ষতি করে না ও ভয়ের কারণ নেই। 

২. আরেক ধরনের টিউমার যেটি শরীরের ভেতরে থাকা অস্বাভাবিক কোষগুলো রক্তের মাধ্যমে শরীরের অন্য কোন অংশে যেয়ে জমা হয়। এবং সে অংশের স্বাভাবিক কাজে বিঘ্ন ঘটায়। এবং নতুন টিউমার তৈরি করতে সাহায্য করে। এ ধরনের টিউমার গুলোকে ম্যালিগনেন্ট বা ক্যান্সার টিউমার বলা হয়। একে আবার সংক্ষেপে ক্যান্সারও বলা হয়।

কি খেলে টিউমার  ভালো হয়? 

আমরা শরীরের রোগ প্রতিরোধ করতে বিভিন্ন রকমের খাবার খেয়ে থাকি ।এবং ঔষধ ও চিকিৎসা নিয়ে থাকি। বিভিন্ন  খাদ্যের মধ্যে বিভিন্ন এরকম পুষ্টিগুণ রয়েছে। এবং পাশাপাশি রয়েছে বিভিন্ন রোগ প্রতিরোধ করার ক্ষমতা।আজকের এই পোস্টটিতে টিউমার ভালো করার ঘরোয়া উপায় ও কি খেলে টিউমার ভাল হয় সে সম্পর্কে আপনাদের জানাবো।

আরো পড়ুনঃ কিভাবে তাড়াতাড়ি লম্বা হওয়া যায়

আমরা টিউমার ভালো করতে বেশিরভাগই ডাক্তারি পরামর্শ ও চিকিৎসা নিয়ে থাকি।  ওষুধ খেয়ে যেমন আমাদের টিউমার সারতে পারে এবং সে সব ওষুধেরও উপকারের পাশাপাশি পার্শ্ব প্রতিক্রিয়া রয়েছে তা আমাদের শরীরের ক্ষতি ও হতে পারে। প্রাকৃতিক অনেক ওষুধ এবং খাবার রয়েছে যেগুলোর কোন পার্শ্ব প্রতিক্রিয়া থাকে। না আসুন আমরা টিউমার ভালো করার উপায় ও কি খেলে টিউমার ভালো হয় তা জেনে নি।

মাশরুম 

মাশরুমে রয়েছে প্রচুর পরিমাণ ভিটামিন ও গুণসম্পন্ন খাদ্য। ১০০ গ্রাম মাশরুমে রয়েছে ২৫ থেকে ৩৫ গ্রাম প্রোটিন। মাশরুম টিউমার ভালো করার অন্যতম খাবার। মাশরুম খুব সহজে আপনার টিউমার প্রতিরোধ করতে কার্যকরী ভূমিকা পালন করে। মাশরুমে রয়েছে কার্যকরী ১০ টি অ্যামাইনো এসিড এগুলো আমাদের শরীরে বিশেষ গুরুত্বপূর্ণ।

মাছ 

আমাদের বাঙ্গালীদের পছন্দের খাবার মাছ। আর এই মাছই রয়েছে প্রচুর পরিমাণ ভিটামিন ও মিনারেল। বিভিন্ন নদ নদীর মাছ ও সাগরের মাছ থেকে আমরা শরীরে বিভিন্ন ধরনের পুষ্টি পেয়ে থাকি। মাছে থাকা  ওমেগা-৩ তে থাকা বিদ্যমান আন্টি টিউমার ও আন্টি ক্যান্সার বৈশিষ্ট্য সম্পন্ন। কেমথেরাপি পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া ঠেকাতে ও এর গুরুত্বপূর্ণ রয়েছে।

সবুজ শাকসবজি

সবুজ শাকসবজিতে রয়েছে প্রচুর পরিমাণে আন্টি অক্সিডেন্ট যা টিউমারের বিরুদ্ধে লড়তে বিশেষভাবে কাজ করে থাকে। হেলেঞ্চা শাক, পালং শাক, লেটুসপাতা, আরুগুলা  এসব প্রভৃতির শাকসবজিতে প্রচুর পরিমাণে আন্টি অক্সিডেন্ট ও মিনারেল রয়েছে। এইসব শাকসবজি টিউমার ছাড়াও আমাদের শরীরের বিভিন্ন রকম রোগ প্রতিরো ক্ষমতা বৃদ্ধি করতে পারে। তাই সুস্থ থাকতে হলে আপনারা বেশি বেশি সবুজ শাকসবজি খাবেন।

হলুদ 

হলুদ আমাদের দেহে ব্যাকটেরিয়া দূর করা হিসেবে কাজ করে থাকে। এছাড়াও এটি আমরা মসলা হিসেবে খাবারের ব্যবহার করে থাকি। হলুদের রয়েছে প্রচুর পরিমাণে আন্টিঅক্সিডেন্ট। যা আমাদের টিউমার প্রতিরোধ করতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে থাকে। 

দুধ ও দুগ্ধ জাত খাদ্য

দুধ একটি তরল ও ক্যালসিয়াম জাতীয় খাদ্য। টক দই প্রতিক্রিয়াকরণ প্রোবায়োটিক ও ব্যাকটেরিয়ার ভালো উৎস হিসেবে কাজ করে। প্রোভাইটেড টিউমার বৃদ্ধিতে বাধা দেয়। এছাড়াও গরু ও ছাগলের দুধে রয়েছে সালফার স্যাচুরেটেড ফ্যাট।

গলায় টিউমার ভালো করার উপায়

আমাদের শরীরে বিভিন্ন রকম রোগ জীবাণয় আক্রমণ করে থাকে ।যা সহজে আমরা চিনতে পারিনা। অনেক সময় আমাদের গলার পিছন দিকের নরম হারে টিউমার হয়ে থাকে। আপনি যদি গলায় কিছু একটা আটকেছে অনুভব করে থাকেন।

তাহলে আপনি বুঝবেন আপনার টিউমার হয়েছে। এছাড়াও দীর্ঘদিন গলা ব্যথা করা ,সর পরিবর্তন গলা ফুলে গেলে ও খসখস করলে কাশি ও কফ জমে থাকলে আপনার গলায় টিউমারের লক্ষণ  বুঝবেন। আজকের এই পোষ্টের মাধ্যমে আমরা গলায় টিউমার ভালো হওয়ার উপায় সম্পর্কে জানব।

১। গলায় টিউমার ভালো করার উপায় হিসেবে আপনাকে কিছু বদ অভ্যাস ছাড়তে হবে।

২। অনেকেই আছেন যারা গলায় টিউমারে ভুগে আছেন তারা বিভিন্ন ধরনের নেশা করে থাকেন আপনাকে এ নেশাগুলো দ্রুত নিষ্পত্তি করতে হবে না হলে আপনার গলার টিউমারটি ভালো হবে না।

৩। আপনারা যারা ধূমপান গ্রহণ করেন তারা এ থেকে বিরত থাকবেন।

৪। আপনারা যারা গলায় টিউমারে ভুগছেন এবং গলায় টিউমার ভালো করার উপায় সম্পর্কে জানতে চাইছেন তারা নিশা জাতীয় বিভিন্ন দ্রব্য যেমন তামাক জর্দা এগুলো থেকে বিরত থাকবেন।

৫। আপনার গলা টিউমার যদি ভাল করতে চান তাহলে দ্রুতই চিকিৎসকের পরামর্শ নিয়ে নিয়ম অনুযায়ী চিকিৎসা করতে হবে।

৬। এবং আপনাকে টিউমার ভালো হওয়ার জন্য যেসব খাদ্য টিউমার প্রতিরোধ করতে পারে। সেসব সবুজ শাকসবজি জাতীয় খাদ্য বেশি বেশি করে খেতে হবে।

টিউমার ভালো করার উপায় 

আমাদের শরীরে বিভিন্ন রকমের রোগ জীবাণু ছড়িয়ে আছে। এবং তার সাথে সাথে রয়েছে হাজার হাজার কোষ এ কোষগুলো প্রতিনিয়ত নতুনভাবে জন্ম নিয়ে থাকে। এবং ক্ষয় হয়ে থাকে। আজকের এই পোস্টটিতে আমরা টিউমার ভালো করার উপায় সম্পর্কে জানব।

তামাক জাতীয় খাদ্যদ্রব্য 

আপনার শরীরে  বিভিন্ন রোগ প্রতিরোধ করতে ও টিউমার ভালো করার উপায় হিসেবে আপনাকে তামাক ও তামাক দ্রব্য পরিহার করতে হবে। আমার যত ও আমাদের শরীরে বিভিন্ন রকমের ক্ষতি করে থাকে। তাই টিউমার ভালো করার উপায় হিসেবে আপনাকে তামাকজাত দ্রব্য থেকে দূরে থাকতে হবে।

পরিষ্কার ও স্বাস্থ্যসম্মত খাদ্য

আমাদের শরীর অসুস্থ রাখতে নিয়মিত পরিষ্কার ও স্বাস্থ্যসম্মত খাদ্য গ্রহণ করা অত্যাবশ্যক আমরা যদি নিয়মিত পরিষ্কার ও স্বাস্থ্যসম্মত খাবার খায় তাহলে আমরা টিউমার প্রতিরোধ করতে সক্ষম হব। আমরা যদি অনেক তেল যুক্ত ও গুরু পাক খাদ্য খেয়ে থাকি তাহলে আমরা বিভিন্ন সমস্যায় ভুগতে পারি। টিউমার ভালো করার উপায় হিসেবে এটি গুরুত্বপূর্ণ।

শরীরের ওজন নিয়ন্ত্রণে রাখা 

বিভিন্ন রোগ থেকে বাঁচতে আমাদের স্লিম থাকা অতি জরুরী কারণ অনেক মোটা ও ফ্যাট যুক্ত শরীরে বিভিন্ন রোগে আক্রমণ হতে পারে। টিউমার ভালো করার উপায় হিসেবে আপনি নিয়মিত ব্যায়াম করতে পারেন। আমাদের শরীরের অতিরিক্ত ফ্যাট কমিয়ে টিউমার ছাড়াওআমরা বিভিন্ন রোগের হাত থেকে বাঁচতে পারি। এটি আপনার টিউমার ভালো করার উপায় হিসেবে বিশেষ ভূমিকা পালন করে থাকে।

সূর্যের অতিবেগুণী রশি থেকে শরীরকে রক্ষা করা 

সূর্যের অতিবেগুনি রশি আমাদের শরীরের বিভিন্ন রকমের ক্ষতি করতে পারে। বিশেষ করে যারা টিউমারে আক্রান্ত আছেন। তাই আপনাকে বাইরে যেতে হলে সানস্ক্রিন ব্যবহার করতে হবে। এবং সূর্য থেকে দূরে থাকতে হবে।

বৈধ ও নিরাপদ যৌন সম্পর্ক নিশ্চিত করা

টিউমার ভালো করার উপায় হলো বৈধ অন্য নিরাপদ যৌন সম্পর্ক নিশ্চিত করা। কারন আমাদের দেহে ও  মনের  শারীরিক সম্পর্কের  ব্যাপক প্রভাব রয়েছে। তাই অবৈধ শারীরিক সম্পর্ক আপনার টিউমার ভালো করতে ব্যাঘাত ঘটাতে পারে। তার জন্য আপনাকে বৈধ ও নিরাপদ যৌন সম্পর্ক নিশ্চিত করতে হবে। এটি টিউমার ভালো করার একটি বিশেষ ও গুরুত্বপূর্ণ উপায়।

টিউমারের চিকিৎসা

আমাদের শরীরে বিভিন্ন প্রকার টিউমার দেখা দেয় সেগুলো সমাধানে আমরা অনেক ধরনের ওষুধ খেয়ে থাকি আসলে বিশেষ করে টিউমারে হোমিওপ্যাথি বিশেষ কাজ করে থাকে এবং স্থান  ভেদে ওষুধ কাজ করে থাকে আসুন তাহলে কোন জায়গায় টিউমার হলে কোন ওষুধ খেতে হবে তা জেনে নিন।

টিউমার ভালো করার ঘরোয়া উপায়  - টিউমারের চিকিৎসাঃ স্তন টিউমারে আপনি ফাইটোলাকা, বেলেডোনা, ক্যালকেলেরিয়া ফ্লোর, লাপিস, ব্রায়োনিয়া কোনিয়াম ইত্যাদি ডাক্তারের চিকিৎসা অনুযায়ী সেবন করতে পারেন।

টিউমার ভালো করার ঘরোয়া উপায়  - টিউমারের চিকিৎসাঃ পলিস টিউমার বা কর্ণ টিউমারে আপনি ক্যালক্যাল এরিয়া ফ্লোর , সাইলেসিয়াত পূজা ইত্যাদি ব্যবহার করতে পারেন।

টিউমার ভালো করার ঘরোয়া উপায়  - টিউমারের চিকিৎসাঃ মূত্রথলির ক্ষেত্রে এপিস, এপকিয়াম , সাইলেসিয়া ইত্যাদি ভালো কাজ করে থাকে।

টিউমার ভালো করার ঘরোয়া উপায়  - টিউমারের চিকিৎসাঃ ডিম্ব কোষের টিউমার এপিএস, স্কেলকেরিয়া কাব, থুজা ব্যবহার করতে পারেন।

টিউমার ভালো করার ঘরোয়া উপায়  - টিউমারের চিকিৎসাঃ মাথার টিউমারে  থুজা, staphysag, ক্যালকেলেরিয়া ফ্লোর ব্যবহার করতে পারেন।

টিউমার ভালো করার ঘরোয়া উপায়  - টিউমারের চিকিৎসাঃ চোখের টিউমারে কোনিয়াম  থুজা কষ্টিকাম শাইলিশিয়া ক্যালকুলেরিয়া ফ্লোর, হেপার, আর্নিকা, মারসল ইত্যাদি উত্তম ফল প্রদান করে থাকে।

টিউমার ভালো করার ঘরোয়া উপায়  - টিউমারের চিকিৎসাঃ মুখের টিউমারের ক্ষেত্রে বেলেডোনা কষ্টিকাম কুনিয়াম অ্যাসিড নাইট ও সাইলেসিয়া উত্তম ফল প্রদান করে।

টিউমার ভালো করার ঘরোয়া উপায়  - টিউমারের চিকিৎসাঃ ঘরের টিউমারে ক্যালকুলেরিয়া কাব কষ্টিকাম অ্যাসিড নাইট ইত্যাদি ভালো ফল প্রদান করে।

টিউমারের ছবি

প্রিয় পাঠকগণ আজকেরে আর্টিকেলে আমরা টিউমার ভালো করার ঘরোয়া উপায় সম্পর্কে আলোচনা করেছি এছাড়া টিউমার সম্পর্কে আরো অনেকগুলো বিষয় সম্পর্কে আলোচনা করেছি তো চলুন টিউমার দেখতে কেমন হয় এ বিষয়টি সম্পর্কে এখন দেখে নেই। আপনাদের সুবিধার্থে নিচে কিছু টিউমারের ছবি দেওয়া হল।

টিউমার ভালো করার ঘরোয়া উপায়
টিউমার ভালো করার ঘরোয়া উপায়
টিউমার ভালো করার ঘরোয়া উপায়

আমাদের শেষ কথাঃ টিউমার ভালো করার ঘরোয়া উপায়

আপনারা যারা আমাদের এই পোস্টটি সম্পূর্ণ মনোযোগ সহকারে শেষ পর্যন্ত পড়েছেন তারা টিউমার ভালো করার ঘরোয়া উপায় ও টিউমার কি টিউমার হওয়ার কারণ সম্পর্কে সঠিকভাবে জানতে পেরেছেন আমাদের শরীরের বিভিন্ন প্রকার টিউমার হয়ে থাকে এগুলো দূর করতে আমাদের পোষ্টির মাধ্যমে আপনার যেকোনো ধরনের টিউমার দূর করতে আপনাকে সঠিকভাবে সাহায্য করবে।

আশা করি আপনারা আমাদের এই পোস্টটি পড়ে অনেক উপকৃত হয়েছেন এবং টিউমার দূর করার ঘরোয়া উপায় সম্পর্কে সঠিকভাবে জানতে পেরেছেন। এতক্ষন আমাদের সঙ্গে থাকার জন্য অসংখ্য ধন্যবাদ এরকম পোস্ট আরো পড়তে নিয়মিত আমাদের ওয়েবসাইট ফলো করুন।

পরিচিতদেরকে জানাতে শেয়ার করুন

0 Comments

দয়া করে নীতিমালা মেনে মন্তব্য করুন ??

অর্ডিনারি আইটি কী?